• E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৪৯ অপরাহ্ন

চুনারুঘাটের আঞ্চলিক ভাষাকে পৃথিবীজুড়ে পৌঁছে দিয়েছেন ব্যারিস্টার সুমন

নুরুল আমিন (চুনারুঘাট) হবিগঞ্জ
  • আপডেটের সময় রবিবার ১৫ নভেম্বর, ২০২০

তখন সুমন ভাই লন্ডনে আইন
নিয়ে পড়া-শুনা করেন। দেশে এসে আইন পেশার পাশাপাশি রাজনীতিতেও নিজেকে প্রকাশ করেন। চুনারুঘাট উপজেলার সুনাচং বাজারে বিজয় দিবসের একটি প্রোগ্রামে আমি উনার সাথে ছিলাম। তখনই উনার ধ্যান ধারনার বিষয়ে জানার সুযোগ হয়। আঞ্চলিক ভাষায় তিনি শিশুদেরকে লেখা পড়ায় মনোযোগী হবার তাগিদ দিলেন। তাগিদটা দিলেন অভিভাবকদেরকেও। তিনি এখনো সেই তাগিদটা দেন তবে এবার নজর পড়েছে যুবক ও কিশোরদের প্রতি। ফুটবল একাডেমি গড়ার জন্য নানাভাবে সহায়তা করছেন তরুণদের । এদের সাথে তিনি আড্ডা দেন, মেলামেশা করেন।
রাজনীতির নীতিটাই উনার কাছে ভিন্ন। তিনি কারো বক্তব্য অনুকরণ করেন না, বলেন নিজের মতো করে আঞ্চলিক ভাষায়। এ বলাটাই উনাকে পৌঁছে দিচ্ছে উচ্চ আসনে। কোন ভেদাভেদ নেই তার কাছে। সহজেই সব শ্রেণির মানুষ পৌঁছে যাবে পারে তার কাছাকাছি। তিনি বেশকিছুদিন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র ছাত্রীদের স্পৃহা জাগিয়েছেন শিক্ষার প্রতি সঠিক মনোনিবেশ করার জন্য। এবং পুরুষ্কারও ঘোষণা করছেন। তাদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ, খেলার সামগ্রী দিয়েছেন।

সৈয়দ সুমনের ব্যস্থতা এখন আরো বেড়ে যাবে । উনার মোবাইলটি পিএস’র হাতে থাকবে এটাই স্বাভাবিক। বর্তমান সময়ে মোবাইল খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা মাধ্যম। সারাদিনে কার কার কাছে থেকে মোবাইলে কল আসলো, কে কি বলতে চাইছিলেন-তা লিপিবদ্ধ রাখা, অবসর সময়ে মিসিং কল ফেরৎ দেয়া সময়ের দাবী।
তরুণদের আইকন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন এখন কেন্দ্রীয় যুবলীগ’র আইন বিষয়ক সম্পাদকই নন শুধু। তিনি যুবাদের সু সংগঠিত করে সেই সম্প্রদায়কে আলোর পথে নিয়ে আসবেন এমনটাই প্রত্যাশা।


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর