• E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:২৮ পূর্বাহ্ন

ছোটগল্প:- রাগ করে না লক্ষিটি

সৈয়দা উলফাত
  • আপডেটের সময় বুধবার ৩ নভেম্বর, ২০২১

রত্না রাগ করে কাপড়ের ব্যাগটা হাতে নিয়ে দরজার সামনে দারিয়ে আছে রত্না বললো আমি কিন্তু সত্যি চলে যাচ্ছি আর কখনো ফিরবো না। আসিক পেপারটা মুখের সামনে ধরে রেখেই বললো হুম গেলে একাবারে যাওয়াই ভালো, বারবার ঝামেলা দরকার নাই। রত্না-কি আমি বারবার ঝামেলা করি?ঝামেলা তুমি কর। তোমার মোত দায়িত্বজ্ঞানহীন মানুষকে বিয়ে করে জীবনটা শেষ করে দিলাম।

বিজ্ঞাপন

আর এখানে থাকছিনা। আশিক- যবেতো চলে যাও, এখানে দাড়িয়ে তর্ক.. ওহ সরি মানে কথা কথা বলার কি দরকার, তর্ক করলে আরো একঘন্টা সময় নষ্ট হবে। রত্না-আমি তর্ক করছি? আশিক-না না আমি বলছিলাম তারাতারি যাও ট্রেন মিস করবে। রত্না-আমি যা তা পরিবারের মেয়ে যে ট্রেনে ধাক্কাধাক্কি করে যাবো, আমি সিএনজি করে যাব। আশিক- আচ্ছা বাবা যাও সিএনজি তেই যাও। রত্না -ছিছিছি কি বললে তুমি এটা আমি তোমার বউ তুমি আমার সাথে এইসব উচ্চারণ কর, তোমার কোন জ্ঞান  নাই। আশিক-ওটা কথার কথা বলেছি রত্না-কথার কথাই বলো, তুমি কেন কার সাথে তুমি কেন কার সাথে কিভাবে কথা বলতে হয় জানোনা। সরি এর এই উচ্চার করবো না ,এই বাব ক্ষমা কর । না করবো না , কাল আমাদের কি ছিল বলতো আমি জানি তোমার মনে নেই কাল আমাদের বিবাহ বার্ষিকী ছিল, সরি জান আর ভুল হবেনা, মান অভিমান ভুলে আবার সংসার করতে শুরু করলো।


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর