• E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২৩ অপরাহ্ন

জীববিজ্ঞানের প্রাথমিক ধারণা: ১ম পর্ব

মনিরুল ইসলাম
  • আপডেটের সময় বুধবার ১১ আগস্ট, ২০২১

আজকের আলোচ্য বিষয়: কোষ

জীববিজ্ঞান পড়ার সময় আমাদের সবার প্রথমে যে জিনিসটাকে নিয়ে অবশ্যই জানতে হয় সেটা হচ্ছে কোষ বা Cell. কোষকে একটা জীবের গঠন (Structure) এবং কাজের (Function) একক বলা হয়। অর্থাৎ একটা জীব বেঁচে থাকা অবস্থায় যত ধরনের কাজ করে সেগুলো সব তার কোষের মাধ্যমে হয়ে থাকে।

প্রাণি এবং উদ্ভিদ, দুটোরই জীবন আছে। তাই কোষ প্রাণিদেহ এবং উদ্ভিদদেহ দুটোতেই থাকে। এখন আমরা একটা প্রাণি এবং উদ্ভিদ কোষের ছবি দেখবো।উপরের ছবিটা দেখলে কোষের গঠন নিয়ে ক্লিয়ার জানা যাবে।

প্রতিটা কোষের বাইরে প্যাকেটের মত একটা আবরণ থাকে যার নাম কোষঝিল্লী। ইংলিশে একে Cell Membrane বা Plasma Membrane বলি আমরা। Membrane শব্দের মানেই হচ্ছে ঝিল্লি বা পর্দা।

কোষের ঠিক মাঝখানে একটা গোলাকার জিনিস দেখা যায়। এটি কোষের কেন্দ্র বা Center. একে নিউক্লিয়াস বলে। নিউক্লিয়াস একটা কোষের সবধরনের কাজ করে। কোষঝিল্লি এবং নিউক্লিয়াস বাদে কোষে বাকি যেই অংশটা থাকে সেটা অনেকটা জেলীর মত। এরা পুরো কোষের কানায় কানায় ভরা থাকে। এদেরকে সাইটোপ্লাজম বলে।
অর্থাৎ একটা কোষ তিনটা মেইন জিনিস নিয়ে তৈরি হয়। কোষঝিল্লি, সাইটোপ্লাজম এবং নিউক্লিয়াস। এই তিনটা অংশকে একত্রে প্রোটোপ্লাজম বলি আমরা। অর্থাৎ-প্রোটোপ্লাজম হচ্ছে একটা জীবের জীবনের ভিত্তি। তাই প্রতিটা কোষে যেহেতু তিনটা মেইন জিনিস থাকে, তাই প্রতিটা কোষই হচ্ছে একেকটা প্রোটোপ্লাজম।

তবে উদ্ভিদকোষের একদম বাহিরের দিকে আরেকটা অংশ থাকে যার নাম কোষপ্রাচীর বা Cell Wall.আগামী পর্বে কোষ প্রাচীর নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

লেখক:- সহকারি শিক্ষক
সানশাইন মডেল হাইস্কুল
মিরপুর, বাহুবল, হবিগঞ্জ।

বিজ্ঞাপন


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর