• E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন

নারীরাও ‘শেইভ’ করতে পারেন

শব্দকথা লাইফস্টাইল ডেস্ক
  • আপডেটের সময় বৃহস্পতিবার ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

মুখে অবাঞ্ছিত লোম! কখনও ভেবেছেন কি শেইভ করবেন?

নারী পুরুষের সমঅধিকারের যুগে ক্ষৌরকর্মের বিষয়টা পুরুষদের একচ্ছত্র অধিকারে কেনো থাকবে! চাইলে নারীরাও মুখ-মুণ্ডন করতে পারেন।
আর মুখে অবাঞ্ছিত লোম থাকলে ত্বক দেখতে কালচে ও রুক্ষ লাগে। তাই স্বল্প ব্যয়ে লোম অপসারণ করতে শেইভ করা যেতেই পারে।
তবে জানা থাকা চাই কিছু কৌশল।
‘টাইমস অফ ইন্ডিয়া’তে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ভারতের ব্লেড ও রেইজর তৈরির প্রতিষ্ঠান ‘লেটসশেইভ’য়ের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা আস্বয়ারি পাওয়ারের দেওয়া পরামর্শ অবলম্বনে জানানো হল বিস্তারিত।
মুখ পরিষ্কার করা
শেইভ করতে প্রথমে মুখ মৃদু পরিষ্কারক ও কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। ক্লিঞ্জার যেন প্রাকৃতিক উপাদান সমৃদ্ধ হয়। প্যারাবেন, সালফেট ও অ্যালকোহলের মতো রাসায়নিক পদার্থ যেন না থাকে।
কুসুম গরম পানি ও ক্লিঞ্জার লোম নরম করতে সাহায্য করে। ফলে লোম কামানো সহজ হয়। তবে পানি যেন কুসুম গরমই থাকে। বেশি গরম পানি ত্বকের উল্টো ক্ষতি করে।
শেইভিং জেল বা ফোম ব্যবহার কাটা ছেড়ার ঝুঁকি কমায়

অনেকেই মনে করেন শেইভিং জেল বা ফোম ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। বাস্তবে সাধারণ সাবান শেইভের ক্ষেত্রে ব্যবহার করলে ত্বকে কাটা-ছেঁড়ার ঝুঁকি বাড়ায়। তাই জেল বা ফোম ধরনের পণ্য ব্যবহার করা উচিত।
ত্বক ভিজিয়ে তাতে পাতলা করে শেইভিং জেল বা ফোম ব্যবহার করে শেইভ করে নিন।
রেইজর ৪৫ ডিগ্রি কোণ বরাবর রাখুন
শেইভ করার সময় কখন চাপ প্রয়োগ করতে হবে তা বোঝার পাশাপাশি শেইভ করার সময় রেইজর ৪৫ ডিগ্রি কোণে ধরতে হবে তা শেখাটাও জরুরি। এতে অবাঞ্ছিত লোমের অংশবিশেষ রয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।
কাটা ছেড়া এড়াতে ত্বক টান টান করে রাখা
কাটা ছেড়া এড়াতে ত্বক টান টান করে ধরা জরুরি। এতে একটানে লোম শেইভ করা যায় এবং মসৃণভাব বজায় থাকে। আঙ্গুলের সাহায্যে সঠিকভাবে ত্বকে চাপ প্রয়োগ করে শেইভ করতে হবে।
শেইভ করতে চুলের বৃদ্ধির দিকে ছোট, হালকা এবং মৃদু ভাবে টানতে হবে
সঠিক ও ধারালো রেইজর দিয়ে শেইভ করলে ত্বকে বাড়তি চাপ প্রয়োগ করতে হয় না। তাই শেইভ করার সময়ে লোমের বৃদ্ধির দিক বরাবর হালকাভাবে রেইজর দিয়ে শেইভ করা শুরু করুন।

বিজ্ঞাপন


অল্প অল্প টানে লোম অপসারণ করতে হবে। একবারে পুরো গালজুড়ে ব্লেড চালানো যাবে না। পা যেভাবে শেইভ করে অনেকটা সেভাবেই করতে হবে।
শেইভ করার পরে ঠাণ্ডা পানি ছিটানো ও ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার
শেইভ করার পরে মুখে আরও বাড়তি লোম আছে কিনা তা বুঝতে ঠাণ্ডা পানি ছিটিয়ে পরখ করে নিন। না থাকলে, মুখ মৃদু চাপ দিয়ে মুছে এর আর্দ্রতা রক্ষা করতে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।
শেইভ করার ফলে ত্বক এক্সফলিয়েটও হয়। তাই ত্বক মসৃণ, কোমল ও উজ্জ্বল লাগে দেখতে। এতে ত্বকের শোষণ ক্ষমতাও বাড়ে। তাই ময়েশ্চারাইজার ভালো কাজ করে।


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর