• E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:১১ অপরাহ্ন

ন্যানোটেকনোলজি গবেষণা বিষয়ে ইন্দো-বাংলা সায়েন্টিফিক মিট অনুষ্ঠিত

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  • আপডেটের সময় মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ও ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স (আইআইএসসি) ব্যাঙ্গালুর এর মধ্যে ন্যানোটেকনোলজি শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ে ইন্দো-বাংলা সায়েন্টিফিক মিট ২০২১ শীর্ষক এক অনলাইন আলোচনাসভা রবিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
উক্ত আলোচনাসভায় উভয় প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ ন্যানো সোসাইটি (বিএনএস) ও বিডি স্টেম ফাউন্ডেশন (বিডি-স্টেম) এর সভাপতি এবং বুয়েটের অধ্যাপক ড. আল-নকীব চৌধুরী, ভারতের সেন্টার ফর ন্যানো সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিইএনএসই)-এর অধ্যাপক ড. এস. এ. শিবশংকর এবং আই-স্টেম এর সমন্বয়ক ড. শ্রীভাস্তবার উদ্যোগে উক্ত সায়েন্টিফিক মিট অনুষ্ঠিত হয়। বুয়েটের মেটেরিয়েলস এন্ড মেটালার্জিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. ফাহমিদা গুলশান অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই অধ্যাপক ড. আল-নকীব চৌধুরী চতুর্থ শিল্প-বিপ্লবের সন্ধিক্ষণে ন্যানোটেকনোলজি বিষয়ে শিক্ষা ও গবেষণার গুরুত্ব এবং বাংলাদেশ-ভারত গবেষণা সহযোগিতার ক্ষেত্র ও সম্ভাবনাসমুহ সম্পর্কে সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন। তারপর আইআইএসসি-এর ইন্টার-ডিসিপ্লিনারী সায়েন্স অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. নবকান্ত ভাট ন্যানোটেকনোলজি বিষয়ে বুয়েটের সাথে যৌথভাবে গবেষণা করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। সিইএনএসই-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক ড. রুদ্র প্রতাপ ভার্চুয়াল ট্যুরের মাধ্যমে তাদের অত্যাধুনিক গবেষণাগারে রক্ষিত বিভিন্ন স্পর্শকাতর যন্ত্রপাতি, ন্যানো ফেব্রিকেশন ল্যাবসহ বিভিন্ন স্থাপনা উভয় দেশের অংশগ্রহণকারীদের সামনে সবিস্তারে লাইভে উপস্থাপন করেন।
বুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সত্যপ্রসাদ মজুমদার সিইএনএসইর টেকনিক্যাল সহযোগিতায় বুয়েটে একটি অত্যাধুনিক ন্যানোটেক সেন্টার স্থাপনের ব্যপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বুয়েটের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল জব্বার খান ২০১২ সালে অনুষ্ঠিত আন্তার্জাতিক ন্যানোটেকনোলজি ওয়ার্কশপে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রদত্ত নির্দেশনা অনুসারে বুয়েটে জাতীয় পর্যায়ে অত্যাধুনিক ন্যানোটেক ল্যাব স্থাপন করার প্রস্তাব উত্থাপন করেন। বুয়েটের ইলেক্ট্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোঃ জুনায়িদ বাতেন বুয়েট ও সিইএনএসইর মধ্যে গবেষণা সহযোগিতার ক্ষেত্র ও সম্ভাবনাসমুহের ওপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

বুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক মজুমদার ও সিইএনএসইর অধ্যাপক এস. রাঘাবান এর মধ্যে আলোচনায় দুই প্রতিষ্ঠানের গবেষকদের পারষ্পরিক অভিজ্ঞতা ও সুবিধাসমুহ বিনিময়ের মাধ্যমে প্রতিবেশি দুই দেশের দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়। একইসাথে অদূর ভবিষ্যতে দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সমযোতা স্মারক স্বাক্ষর করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আলোচনার শেষ পর্যায়ে দুই প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতার ক্ষেত্রসমুহ নিয়ে অংশগ্রহণকারীদের প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। বুয়েটের ইলেক্ট্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. প্রাণ কানাই সাহা এর ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও গবেষণা সহযোগিতার আশাবাদী বক্তব্যের মাধ্যমে সায়েন্টিফিক মিট সমাপ্ত হয়।


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর