• E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন

মঠবা‌ড়িয়ায় ছাত্রলীগ নেতা খু‌নের মামলায় কিশোর গ্যাংয়ের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার

এইচ.এম. আকরামুল ইসলাম (মঠবাড়িয়া) পিরোজপুর
  • আপডেটের সময় মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর, ২০২১

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় প্রেম ও পূর্ব শত্রুতার জের কিশোর গ্যাংয়ের এলোপথারী ছুরিকাঘাতে নিহত ছাত্রলীগ নেতা রাহাত হোসেন (২০) হত্যার ঘটনায় এ ঘটনায় পুলিশ এজাহারভুক্ত তিন আসামি ও সন্দেহভাজন দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে। নিহত রাহাত হোসেন উপজেলার দক্ষিণ গুলিসাখালী গ্রামের শাহ আলম হাওলাদারের ছেলে ও গুলিসাখালী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি এবং ডৌয়াতলা ওয়াজেদিয়া কলেজের একাদ্বশ শ্রেণীর ছাত্র। এজাহারভুক্ত গ্রেপ্তার তিন আসামি ও সন্দেহভাজন দুই সোমবার বিকেলে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার এজাহারভুক্ত আসামিরা হলো উপজেলার দক্ষিণ গুলিসাখালী গ্রামের
মহারাজ মালের ছেলে শাওন মাল (১৭), আলী ফরাজীর ছেলে আসাদুল ফরাজী (১১), দুর্গাপুর গ্রামের রুহুল আমিন মোল্লার ছেলে নাদিম মোল্লা (১৭)। এর আগে
পুলিশ সন্দেহভাজন হিসেবে চুন্নু মিয়া ও সেন্টুকে গ্রেপ্তার করে।

নিহত রাহাতের বাবা শাহ আলম হাওলাদার বাদি হয়ে রোববার ১২ জন নামীয় ও ১০-১৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলাটি দায়ের করেন।

উল্লেখ্য, গত শনিবার রাতে উপজেলার টিয়ারখালী আ. মজিদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়
মাঠে শেখ রাসেল স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা শেষে শুভ তার
বন্ধুদের নিয়ে গুলিসাখালী আসার পথে প্রেম ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুর্বৃত্তরা
মহারাজ মৃধা বাড়ির বা বোবা বাড়ি নামক স্থানে শুভ’র উপর হামলা চালায়।
এসময় শুভকে বাঁচাতে তার বন্ধুরা এগিয়ে আসলে দেশীয় অস্ত্রের এলোপাথারি
কোপে রাহাত, সানাউল, আরিফ ও আঃ লতিফ আহত হয়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাহাত হাওলাদারকে মৃত ঘোষণা করেন।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল হক‌ জানান, এজাহারভুক্ত তিন আসামি ও
সন্দেহভাজন দুই জনকে গ্রেপ্তার করে সোমবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
বাকি আসামি গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর