• E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১১:২৪ অপরাহ্ন

মা ইলিশ রক্ষায় এগিয়ে আসুন || ইমরান খান রাজ

লেখকঃ- শিক্ষার্থী, শেখ বোরহানউদ্দিন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজ
  • আপডেটের সময় মঙ্গলবার ৫ অক্টোবর, ২০২১

ইলিশ মাছের প্রজনন মৌসুমে গভীর সমুদ্র থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে ডিমওয়ালা রুপালি ইলিশ আমাদের নদীতে আসে। যদিও ইলিশ লবণাক্ত জলের মাছ বা সামুদ্রিক মাছ এবং এই মাছ বেশিরভাগ সময় সাগরে থাকে। তবে বংশবিস্তারের জন্য প্রায় ১২০০ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করে ভারতীয় উপমহাদেশে নদীতে পাড়ি জমায়। বাংলাদেশে নদীর সাধারণ দূরত্ব ৫০ কিমি থেকে ১০০ কিমি। ইলিশ প্রধানত বাংলাদেশের পদ্মা (গঙ্গার কিছু অংশ), মেঘনা (ব্রহ্মপুত্রের কিছু অংশ) এবং গোদাবরী নদীতে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। এর মধ্যে পদ্মার ইলিশের স্বাদ সবচেয়ে ভালো বলে ধরা হয়।

ইলিশ বাংলাদেশের জাতীয় মাছ। এই মাছ একদিকে যেমন জীবন-জীবিকার পথ, আবার অন্যদিকে এটি বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্য। ছোট থেকে বড় সকলেই ইলিশ খেতে পছন্দ করে ও ভালোবাসে৷

ইলিশ মাছের সংখ্যা বৃদ্ধি ও মাছের উৎপাদন বাড়াতে বাংলাদেশ সরকার প্রতিবছর ‘মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান’ বাস্তবায়ন করে থাকে৷ ইলিশের সংখ্যা কমে যাওয়ার ফলে ২০০২ সালে ইলিশ রক্ষার জন্য মা মাছ ও জাটকা ধরায় নিষেধাজ্ঞা এবং প্রজনন মৌসুমে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। এর ফলস্বরূপ গত ১০ বছরে দেশে ইলিশের উৎপাদন বেড়েছে কয়েক গুন৷

এইবছর ৪ অক্টোবর থেকে ২৫ অক্টোবর মোট ২২দিন পর্যন্ত মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান চালানো হবে। এই সময়টাতে বাংলাদেশের প্রায় ৩৮টি জেলায় ইলিশ শিকার সরকারিভাবে বন্ধ থাকবে। বন্ধের সময় এসব জেলার মৎস শিকারী বা জেলেদেরকে ভিজিএফ কর্মসূচীর আওতায় এনে ২০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হবে। আর এতে জেলেদের পারিবারিক সমস্যা কিছুটা হলেও সমাধান হবে।

মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান চলাকালীন সময়ে ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাত, ক্রয়-বিক্রয় ও বিনিময় সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ। এই আইন অমান্য করলে কমপক্ষে ১ বছর থেকে সর্বোচ্চ ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড অথবা পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা কিমবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারে৷ ইলিশ আমাদের বাংলাদেশের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ। আমরা আমাদের জায়গা থেকে এই আশীর্বাদ ঠেলে ফেলে দিতে পারিনা৷ ইলিশ রক্ষায় সমাজের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। মানতে হবে সরকারি নিষেধাজ্ঞা ও আইন। সরকার ঘোষিত এই ২২দিন আমরা ইলিশ মাছ ক্রয়-বিক্রয় বা আহরণ কিমবা মজুদ থেকে বিরত থেকে বাংলাদেশে ইলিশ উৎপাদন বৃদ্ধি করতে সহায়তা করবো। যাতে এই ইলিশ দেশের বাইরে বিদেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা ও সম্মান অর্জন করতে পারি।


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর