• E-paper
  • English Version
  • শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

কবিতা:- বিদ্রোহী স্বর || সবুজ মাহমুদ

লেখক, কবি
  • আপডেটের সময় বুধবার ১ ডিসেম্বর, ২০২১

বাহ্ ! মঞ্চে দাঁড়িয়ে গর্জন তুলে
দিয়ে চলেছো তুমি ভাষণ
কেউ বাহবা দিলো, কেউ করতালি দিলো
নেতা উপাধি দিলো কতজন ,
মঞ্চের পাশে বসিয়া ছিল বস্ত্রহীন
দেখলে না তুমি, সে যে তোমারী স্বজন
দিলে না তারে একটি খানি বসন।

যাহার ক্ষুধার জ্বালা নেই পেটে
তাহারে খাওয়াতে পাগল তুমি হলে
অন্নের অভাবে যাহার
পরাণ যায় যায় করে
তারে তুমি দিলে গলা ধাক্কায় ফেলে।
বস্ত্রের খোলসে, ভদ্রতার মুখোশে
সাজলে তুমি মহাগুণী জন।

“মানুষে মানুষে নেই ভেদাভেদ
সবার সম-অধিকার করিবো স্থাপন”।
শোনালে শত নীতি কথা
হয়ে অতি আপন জন ,
যতই শোনাও নীতি কথা
ভেঙ্গে নীতির ঘাড়
তোমার বিচারে অপরাধি হবে
অভাবে যাহার ভেঙ্গেছে ঘরের দ্বার।

ক্ষুধার তাড়নায় কেটেছে যে তোমার ঘরে শীথ
তাহারে বাঁধিয়াছ তুমি বৃক্ষে লাগিয়া পীঠ।

রিলিফের নামে যাহা দিলে তুমি
হাত ভরিয়া নিলো
নিদারুণ অভাবে থাকা যত আছে সব ধনী ,
অনাহারীদের জ্বলবে না চুলা
হাঁড়ি যে ভিশন খালি ,
ভেবেছ কি একবার
তাহাদের অধিকার ছিল কত খানি ।

ভোটের মৌসুমে বক্ষে জুড়িয়া পাণি
বলেছিলে ভাই, দিও আমায় ভোট খানি,
সবই ভূলেছ আজ
ক্ষমতা পেয়ে তুমি।
কালের স্রোতে সবই গত হবে
অনাদিকাল তুমিও রবেনা জানি,
পাপ যে তোমায় ছাড়িবেনা হায়
করিবে নরকবাসী।

মানুষে মানুষে হানাহানি নয়
প্রীতিতে বাঁধো বাহু খানি,
মানুষের মাঝেই স্বর্গ – নরক
নহে দূরো গামী।
নেতা যদি হতেই হয়, ভাই
আগে মানুষের মত মানুষ হও তুমি।

 

বিজ্ঞাপন

 


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর