চুনারুঘাটে বিজিবি কর্তৃক চা- শ্রমিকদের গরু নিয়ে যাওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • আপডেটের সময় শনিবার ৩০ এপ্রিল, ২০২২

চিমটিবিল ক্যাম্পের বিজিবি সদস্য কর্তৃক নালুয়া চা-বাগান থেকে শ্রমিক সুমন উরাং, লক্ষ্মণ তাঁতী ও উত্তম তাঁতী এর পালিত ১০টি গরু নিয়ে যাওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে চুনারুঘাট উপজেলার নালুয়া চা-বাগানের শ্রমিকরা।
শনিবার (৩০ এপ্রিল) সকাল ৯টায় নালুয়া চা-বাগানে এ মানববন্ধন করেন তারা।
উক্ত মানববন্ধনে প্রায় দেড় হাজার চা-শ্রমিক অংশ গ্রহণ করেন।
বক্তব্য রাখেন স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মাখন গোস্বামী, ৯ নং ওয়ার্ড মেম্বার রতন মুন্ডা, সাবেক মেম্বার লিটন জমাদার, নটবর রুদ্রপাল, পঞ্চায়েত কমিটির সহ-সভাপতি অমুল ঝরা চা-শ্রমিক নারী সংগঠনের আহবায়ক খাইরুন আক্তার সহ আরও কয়েকজন।
মানববন্ধন বক্তারা বলেন, চিমটিবিল ক্যাম্পের বিজিবি লক্ষ্মণ তাঁতী, সুমন উরাং ও উত্তম তাঁতীর পালিত ১০ গরু চা-বাগানে চরে বেড়ানো অবস্থায় ধরে নিয়ে গিয়ে দ্রুত নিলামে বিক্রি করে দেয়। বিজিবির সাথে স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বার ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ যোগাযোগ করলেও তারা কারোর কথা শুনতে চাননি।
বিজিবি গরীব চা-শ্রমিকদের প্রতি এটা অন্যায় ও অনিয়ম করেছে বলে তারা বক্তব্যে উল্লেখ করেন। বক্তারা বিজিবির সোর্স পরিচয় দিয়ে বেড়ানো চিমটিবিল খাস পাড়ার শিপন নামের এক যুবককে মাদক ব্যবসায়ী আখ্যায়িত করে তার বিরুদ্ধে চা-শ্রমিকদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানির অভিযোগ করেন। তারা বিজিবির সাথে মাদক ব্যবসায়ী শিপন কেন এমন প্রশ্নও তুলেন। তারা বলেন, সত্যিকারের অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক মূলক শাস্তি হউক এটা সকলের কাম্য। কিন্তু নিরীহ ও মাত্র ১২০ টাকা মজুরিতে কাজ করা চা-শ্রমিকদের হয়রানি না করার অনুরোধ জানান। তারা অবিলম্বে চা-শ্রমিকদের ১০টি গরু ফেরত দেওয়ার দাবি জানান। অন্যথয় তারা আরও কঠোর প্রতিবাদের হুমকি দেন।
উল্লেখ্য গত ২১ এপ্রিল বৃহস্পতিবার নালুয়া চা-বাগানের ১৫ ও ১৬ নম্বর সেকশন থেকে ভারতীয় চোরাই গরু আখ্যা দিয়ে ৮ গরু ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে নিলামে বিক্রি করে বিজিবি চিমটিবিল বিওপি।


এই ক্যাটাগরিতে আরো খবর